১৯৬৬ সালের ঐতিহাসিক ৬ দফা গুলো কি কি ? [ছয় দফা a to z]

৬ দফা গুলো কি কি

ছয় দফা: পূর্ব পাকিস্তানের স্বায়ত্তশাসন প্রতিষ্ঠার উদ্দ্যেশে শেখ মুজিবুর রহমান আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ১৯৬৬ সালের ৫ ও ৬ ফেব্রুযারি পাকিস্তানের লাহোরে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর এক সম্মেলনে ৬টি দাবি পেশ করেন, যা ঐতিহাসিক ৬দফা নামে পরিচিত।

নিচে ১৯৬৬ সালের ৬ দফা গুলো তুলে ধরা হয়েছে।

৬ (ছয়) দফা গুলো:

  1. শাসনতান্ত্রিক কাঠামো ও রাষ্ট্রের প্রকৃতি: লাহোরে সর্বসম্মতিক্রমে সংবিধান রচনার মধ্য দিয়ে পাকিস্তানকে একটি ফেডারোশনে পরিণত করতে হবে, যেখানে সংসদীয় সরকার হবে এবং প্রাপ্তবয়স্কদের ভোটে নির্বাচিত আইন পরিষদ সার্বভোম ক্ষমতার অধিকারী হবে।
  2. কেন্দ্রীয় সরকারের ক্ষমতা: "দেশরক্ষা ও বৈদেশিক নীতি" এই দুটি ক্ষমতা থাকবে কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে। অবশিষ্ট সকল ক্ষমতা থাকবে অঙ্গ-রাষ্ট্রগুলির হাতে।
  3. মুদ্রা: মুদ্রার বিষয়ে নিম্নলিখিত দুটি প্রস্তাবের যেকোনো একটি গ্রহণ করতে হবে।
    • পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের জন্য দুটি পৃথক, অথচ অবাধে বিনিময়যোগ্য মুদ্রা ব্যাবস্থা চালু করতে হবে।
    অথবা,
    • একটি মাত্র মুদ্রা ব্যাবস্থা করলে পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের জন্য আলাদাভাবে দুটি রিজার্ভের পত্তন করতে হবে এবং পৃথক দুটি অর্থবিষয়ক নীতি বাস্তবায়ন করতে হবে।
  4. রাজস্ব, কর, বা শুল্ক: অঙ্গরাজ্যগুলি নিজ নিজ সার্বভৌম ক্ষমতা বলে শুল্ক ধার্য করতে পারবে, এক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকার কোনো কর ধার্য ক্ষমতা থাকবেনা। তবে কোন্দ্রীয় সরকারের ব্যায় নির্বাহের জন্য একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ অঙ্গরাজ্যগুলি কেন্দ্রীয় সরকারকে প্রদান করবে।
  5. বৈদেশিক বাণিজ্য: বৈদেশিক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত নিয়মনীতিগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে।ফেডারোশনের প্রতিটি অঙ্গরাজ্যের পৃথক পৃথক হিসার রাখতে হবে।অঙ্গরাজ্যগুলো নিজ নিজ বৈদেশিক বাণিজ্যের মাধ্যমে অর্জিত বৈদেশিক মুদ্রা নিজ নিজ এখতিয়ারে রাখবে।কেন্দ্রীয় সরকারের প্রয়োজনীয় বৈদেশিক মুদ্রার চাহিদা প্রতিট অঙ্গরাজ্য সমান হারে প্রদান করবে। অঙ্গ-রাষ্ট্রগুলির মধ্যে দেশীয় দ্রব্য চলাচলে কোনোরুপ কর ধার্য করা যাবেনা। অঙ্গরাষ্ট্রগুলিকে বৈদেশিক কার্য সম্পাদনের জন্য নিজ নিজ প্রতিনিধি প্রেরণ ও চুক্তি সম্পাদনের ক্ষমতা প্রদান করতে হবে।
  6. সেনাবাহিনী গঠন: আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও শাসনতন্ত্র রক্ষার জন্য অঙ্গরাজ্যগুলিকে নিজেদের তত্বাবধানে আধা সামরিক বা আঞ্চলিক সেনাবাহিনী গঠন ও পরিচালনা করার ক্ষমতা দিতে হবে।

বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা গুলো কি কি ?

উত্তর: ১৯৬৬ সালে বঙ্গবন্ধুর পেশ করা ছয়টি দাবিকে বঙ্গবন্ধুর ৬ দফা বলা হয়। দফাগুলো উপরে দেয়া হয়েছে।

ছয় দফা কর্মসূচি কে উত্থাপন করেন?

উত্তর: ছয় দফা কর্মসূচি শেখ মুজিবুর রহমান উত্থাপন করেন।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url