ঈশান কোন কোন দিকে হয়? ঈশান কোনে পায়খানা করলে কি হয়?

ঈশান কোনে পায়খানা করলে কি হয়

ঈশান কোন কোন দিকে হয়?

ঈশান কোন উত্তর ও পূর্বে দিকের মধ্যস্থানের দিকে হয়।

বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে, পূর্ব ও উত্তরের কোনকে সর্ব শ্রেষ্ঠ কোন বলে মনে করা হয় কারণ এই দিকে সকল দেব-দেবীর বাসস্থান। এই দিকে জানালা ও দরজা নির্মাণ করা খুবই শুভ। "ঈশান" কোন মানেই জ্ঞান, সম্পদ এবং সমৃদ্ধি। যেহেতু ঈশান কোনে সকল দেবতাদের বাস তাই এই স্থানকে অত্যন্ত পবিত্র মনে করা হয়।

হিন্দুধর্ম মতে, পূর্ব দিক জ্ঞানের প্রতিনিধিত্ব করে এবং উত্তর দিক সুখের প্রতিনিধিত্ব করে। আর ঈশান কোন এই দুই জনেরই সমন্বয়।

ঈশান কোনে পায়খানা করলে কি হয়

বাস্তু শাস্ত্র অনুযায়ী, ঈশান কোনে পায়খানা করলে পরিবারের উপর খারাপ প্রভাব পড়ে যে কারণে আপনার জীবনে অভাব-অনটনসহ নানা রকম সমস্যা সৃষ্টি হয়। মানসিক অশান্তি, ঝগড়া বেড়ে যায় এবং যতই ইনকাম করেন না কেনো অর্থিক সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন না। এছাড়ও নানা রকম খারাপ খবর আপনার জীবনকে গ্রাস করে নিতে থাকবে। এজন্য নিম্নোক্ত বিষয়গুলো মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ।
  1. ময়লা-আবর্জনা, টয়লেট, রান্নাঘর বা কোন প্রকার ভারী লোহার জিনিস ঈশান কোনে রাখা উচিত নয়।
  2. ঈশান কোন সব সময় খোলামেলা ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে রাখা উচিত।
  3. ঈশান কোনে কোন দোষ থাকলে আর্থিক সমস্যাসহ নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।
  4. বাস্তুদোষ সম্পদের ধ্বংস ও মন্দভাগ্য সৃষ্টির দিকে নিয়ে যায়।
  5. সেই সঙ্গে অসুখ-বিসুখ আপনার পিছু ছাড়বে না।

ঈশান কোন

  1. ঈশান কোনের অধিপতি দেবতা হলেন মহাদেব শিব।
  2. "ঈশান" মহাদেব শিবের একটি নাম যে কারণে এই দিককে বলা হয় ঈশান কোন।
  3. শিবের পাঁচটি রূপ রয়েছে আগুন, জল, বায়ু, পৃথিবী ও আকাশ।
  4. "ঈশান" ভগবান শিবের একটি নাম। এর মূল হল "ঈশ" অর্থাৎ অদৃশ্য শক্তি যা বিশ্বকে শাসন করে।
  5. ঈশান কোন শিবের পঞ্চম রূপ।
  6. ঈশান কোনের অধিপতি গ্রহ বৃহস্পতি।
  7. "ঈশান" শব্দের অনেক অর্থ রয়েছে এবং এর একটি অর্থ "উত্তর-পূর্ব" দিক।
নোট: ঈশান কোন সকল দেব-দেবীর বাসস্থান এবং অত্যন্ত পবিত্র এই স্থানে টয়লেট বা পায়খানা করা মানে দেব-দেবীকে অসম্মান করা বা বিশ্বাস না করা। আপনি যদি একজন হিন্দু ঘরের সন্তান হয়ে থাকেন তাহলে এই ভুলটি ভুলেও করবেন না। ইতিমধ্যেই যদি আপনি ভুল করে বা না বুঝে ঈশান কোনের টয়লেট ব্যবহার করছেন তহলে যত তারাতারি সম্ভম টয়লেটের স্থান পরিবর্তন করুন। আর যদি পরিবর্তন করা সম্ভম না হয় তাহলে এর কুপ্রভাব থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য কিছু বিধি-বিধান রয়েছে সেগুলো ফলো করুন আশা করি উপকৃত হবেন।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url